কোটালীপাড়ায় বিদ্যুতের তারে পেচিয়ে হত্যার অভিযোগ

কোটালীপাড়া :

গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় বিদ্যুতের তারে পেচিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

ঘটনাটি ঘটেছে গত ২৯ মে উপজেলার মাঝবাড়ী গ্রামে। এ ঘটনায় নিহতের বাবা ইউসুফ গাজী বাদি হয়ে ৫ জনকে আসামী করে গত ২৫  জুন কোটালীপাড়া থানায় একটি হত্যার অভিযোগ দায়ের করেছেন।

 বাদি তার অভিযোগে উল্লেখ করেন  আসামী সুমন দাড়িয়া আমার ছেলের কাছ থেকে জমি খরিদ করার কথা বলে ৫ লক্ষ টাকা নিয়ে আজ কাল করে দীর্ঘ দিন যাবৎ ঘুরাইতে থাকে এবং তার জবর দখল ও অনৈতিক কর্মকান্ডের প্রতিবাদ করে এর পর থেকে আসামীরা আমার ছেলে কে হত্যার পরিকল্পনা করে প্রমান লোপাটের জন্য ঘটনার দিন সকালে তাকে আসামী সুমন দাড়িয়ার মৎস্য ঘেরে ডেকে নিয়ে বিদ্যুতের তারে পেচিয়ে আমার ছেলে হাসান গাজীকে হত্যা করে।

 রবিবার সরেজমিনে গেলে নিহত হাসান গাজীর বাবা ইউসুফ গাজী,মা হামিদা বেগম,স্ত্রী রিনা বেগম,শশুর নাসির মোল্লা সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করে বলেন আসামীদের সাথে আমাদের জমিজমা সংক্রান্ত ও পাওনা টাকা চাওয়া নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল উক্ত বিরোধের জের ধরে আসামী সুনম দাড়িয়া (২৫) আলী দাড়িয়া (৪৫) আব্দুল রফ দাড়িয়া (৫৫) সোহেল দাড়িয়া (৩০) ও কালু মন্ডল (৩৫) ঘটনার দিন সকালে  হাসান গাজীকে তাদের ঘের পাড় নিয়ে মারপিট করে আহত করার পর প্রমান লুকাতে বিদ্যুতের তার পেচাইয়া তাকে হত্যা করে।

ভুক্তভোগী জমির মালিক মিজানুর রহমান ও মুনছুর ফকির বলেন সুমন আমাদের এক বিঘা জমিতে মৎস্য ঘের নির্মান করেছে দুইবছর কোন টাকা পয়সা দেয়নি।

এছাড়া ও সুমন দাড়িয়ার বিরুব্ধে এলাকার সাধারণ মানুষদের জমি দখল করে মৎস্য ঘের ও পল্ট্রি ফার্ম নির্মান সহ ডাকাতি মামলা রয়েছে।

এদিকে ডাকাতি মামলায় ইতিমধ্যে হত্যা অভিযোগের প্রধান আসামী সুমন দাড়িয়াকে গ্রেফতার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ ডিবি।

কোটালীপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি শেখ লুৎফর রহমান জানান  অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত করে নিয়মিত মামলা রুজু করে ব্যবস্হা নেয়া হবে।

নোটিশ

অনুমতি ব্যাতিত এই সাইটের কোন লেখা বা ছবি কপি করা নিষেধ, কপি করলে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।