গোপালগঞ্জে মুসলমানি দিতে গিয়ে ৫ বছরের শিশুর পুরুষাঙ্গ কেটে ফেলেছে ডাক্তার

Exif_JPEG_420

গোপালগঞ্জ রিপোর্ট ঃ
গোপালগঞ্জে মুসলমানি দিতে গিয়ে তামিম মাহমুদ নামে ৫ বছরের শিশুর পুরুষাঙ্গ কেটে ফেলেছে ডাক্তার। আজ সকালে গোপালগঞ্জ শহরের কলেজ মসজিদের পাশে জিম ক্লিনিকের ডাক্তার মাহফুজুর রহমান ৫ বছরের এক শিশুকে মুসলমানি দিতে গিয়ে তার পুরুষাঙ্গ কেটে ফেলে। তাকে আশঙ্কা জনক অবস্থায় গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হয়। এ সময় তার অবস্থা আরো অবনতি হলে তাকে হেলিকপ্টারে করে ঢাকায় নেওয়া হয়। তামিম মাহমুদ গোপালগঞ্জ শহরের নিচুপাড়া আরামবাগ এলাকার তারেক মাহমুদের ছেলে। এ বিষয়ের ডাক্তার মাহফুজ জানান মুসলমানির সময় শিশুটি নড়ে চড়ে ওঠায় এ ঘটনা ঘটে। দ্রুত সে সুস্থ হয়ে যাবে। এ ঘটনার পর ক্লিনিক কর্তৃপক্ষ তালা মেরে গা ঢাকা দিয়েছে।
স্থানীয়রা জানান এই জিম ক্লিনিকে আগেও এক নারীর ভুল অপারেশন করে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দেওয়া হয়েছিলো। সম্প্রতি গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ডাক্তার ও নার্সের ভুল ইনজেশনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ব বিদ্যালয়ের ছাত্রী মরিয়ম সুলতানা মুন্নির এক মাসেও জ্ঞান ফেরেনি। এভাবেই চলছে গোপালগঞ্জের চিকিৎসা ব্যবস্থা।

নোটিশ

অনুমতি ব্যাতিত এই সাইটের কোন লেখা বা ছবি কপি করা নিষেধ, কপি করলে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।