সংবাদ প্রচারের পর গোপালগঞ্জ শেখ সায়েরা খাতুন মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষকে ডিমোশন বদলি

 

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি:
দৈনিক বর্তমান গোপালগঞ্জ পত্রিকায় গত ২৩ আগস্ট ও ১ অক্টোবর বৈশাখী টেলিভিশনে গোপালগঞ্জ শেখ সায়েরা খাতুন মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডাঃ লিয়াকত হোসেনের অনিয়ম, দুর্নীতির সংবাদ প্রচারের পর স্বাস্থ্য অধিদপ্তর নড়ে-চড়ে বসে। রাষ্ট্রপ্রতির আদেশ ক্রমে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের উপ-সচিব মল্লিকা খাতুন ১১ অক্টোবর এক প্রজ্ঞাপনে শেখ সায়েরা খাতুন মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডাঃ লিয়াকত হোসেনকে ডিমোশন দিয়ে খুলনা মেডিকেল কলেজের সহযোগী অধ্যাপক হিসেবে বদলি করেন ও গোপালগঞ্জ শেখ সায়েরা খাতুন মেডিকেল কলেজের নতুন অধ্যক্ষ হিসেবে খুলনা মেডিকেল কলেজের অধ্যাপক ডাঃ খান গোলাম মোস্তফাকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।
উল্লেখ্য, গোপালগঞ্জ স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের দুই উর্ধ্বতন কর্মকর্তা জানান, শেখ সায়েরা খাতুন মেডিকেল কলেজে ৮১ জন ডাক্তারের মধ্যে ৭৪ জন অনুপস্থিত থাকেন। অধ্যক্ষ প্রতি সপ্তাহে সরকারি তেল খরচ করে বরিশালে যান সেখান থেকে বিমানযোগে ঢাকায় যান ও পরের সপ্তাহে আবার বিমানযোগে বরিশালে আসেন সেখান থেকে সরকারি গাড়ির তেল খরচ করে গোপালগঞ্জে আসেন। করোনা শুরু হওয়ার পরেই  তিনি গোপালগঞ্জে  করোনাা  পরীক্ষার  আর টি পি সি আর মেশিন  আনতে অনীহা প্রকাশ করেন।সব কিছু মিলে স্বাস্থ্য সেবা ভেঙ্গে পড়ছিলো। এছাড়া আউটসোর্সিং নিয়োগে অনিয়ম ও শেখ সায়েরা খাতুন মেডিকেল কলেজের দুই কর্মকর্তার অটল সম্পদের অনুসন্ধান করছে দুদক।

নোটিশ

অনুমতি ব্যাতিত এই সাইটের কোন লেখা বা ছবি কপি করা নিষেধ, কপি করলে তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।